ঘরেরই শুটিং, তৈরি হচ্ছে সিনেমা–ওয়েব সিরিজ

করোনাভাইরাস পাল্টে দিয়েছে আমাদের জীবনের বাস্তবতা। এ সময় অনেক শিল্পীর ঘর রূপান্তরিত হয়েছে কর্মক্ষেত্রে। কণ্ঠশিল্পীরা বেশ আগেই শুরু করেছিলেন গান ও মিউজিক ভিডিও, নৃত্যশিল্পীরা করেছেন নাচের ভিডিও। এবার ঘরে বসেই শুরু হলো চলচ্চিত্র ও ওয়েব সিরিজের শুটিং। বেশ কজন চলচ্চিত্র পরিচালক ঘরে বসে শুরু করেছেন তাঁদের করোনাকালের নির্মাণকাজ।

এসব নির্মাণের ক্ষেত্রে অনলাইনেই চিত্রনাট্য বিনিময় করছেন শিল্পীরা। ফোনে করছেন আলোচনা। তারপর নিজ নিজ ঘরে বসে শিল্পীরা সেসব সিনেমার জন্য শুটিং করছেন। ভিডিওর কাজে ব্যবহার করছেন নিজেদের স্মার্টফোনগুলোকে। চিত্রগ্রাহক হিসেবে কাজ করছেন শিল্পী পরিবারের সদস্যরা। আর লোকেশন হিসেবে বেছে নিচ্ছেন প্রয়োজনমতো নিজের ঘর, বারান্দা ও বাড়ির ছাদকে। এ প্রক্রিয়ায় ইতিমধ্যে তৈরি হয়েছে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও দুটি ওয়েব সিরিজ। শিগগিরই শুরু হবে আরেকটি স্বল্পদৈর্ঘ্যের শুটিং।

নির্মাতারা জানালেন, করোনাভাইরাসের কারণে মাসখানেক শুটিং বন্ধ। আপৎকালীন সময়ে এই প্রক্রিয়ায় কাজগুলো করা হচ্ছে। পরিস্থিতি অনুযায়ী এগুলোকে পরীক্ষামূলক কাজ হিসেবে ধরে নিচ্ছেন তাঁরা। কেননা, এসব কাজে নেই কোনো পেশাদার ক্যামেরা, চিত্রগ্রাহক কিংবা প্রয়োজনীয় আলো। এসব ছবি মুক্তির পর কাজগুলো প্রশংসিত হলে আরও কাজ করবেন তাঁরা।

একেবারে নতুন গল্পে ঘরে বসেই অমিতাভ রেজা চৌধুরী শুরু করেছেন ওয়েব সিরিজ ঘরে বসে আয়নাবাজি। সেখানে দেখা যাবে আয়নাবাজি ছবির আয়না চরিত্রের চঞ্চল চৌধুরী, হৃদি চরিত্রে নাবিলা ও সাবের হোসেন চরিত্রে পার্থ বড়ুয়াকে। অমিতাভ বলেন, আয়নাবাজির চরিত্রগুলোকে নিয়ে করোনার সময়ের গল্প বলা হয়েছে এখানে। এটি একটি সচেতনতামূলক প্রচারণার কাজ। শিগগিরই ইউটিউব, ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে দেখা যাবে নাতিদীর্ঘ এ ধারাবাহিক।

লকডাউন নামে পাঁচ পর্বের ওয়েব সিরিজ নির্মাণ করেছেন ফয়েজ জুবায়ের। লকডাউনে আটকে পড়া তিন যুবকের কাহিনি এটি। অভিনয় করেছেন ইমরান ইমন, তন্ময় পারভেজ ও পরিচালক নিজে। জুবায়ের বলেন, ‘আমরা এক বাড়িতে থাকি। ভাবছিলাম কিছু করা যায় কি না। বঙ্গবিডির পরিচালক মুশফিক ভাইকে জানালে তিনি উৎসাহ দিলেন, করে ফেললাম।’ সিরিজটি দেখা যাবে বঙ্গবিডিতে।

ওয়েটিং নামে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন কাজল আরেফিন। অভিনয় করেছেন আফরান নিশো, মেহ্জাবীনসহ কয়েকজন শিল্পী। চলচ্চিত্রটির শুটিং, সম্পাদনাসহ সব কাজ শেষ। শিগগিরই সেটি দেখা যাবে সিনভার স্ক্রিন নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে।

আলো আসবেই নামে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাস। অপু বিশ্বাস, মিশা সওদাগর, অমিত হাসান, মাহিয়া মাহি, বাপ্পী চৌধুরী, সায়মান সাদিক, তমা মির্জাসহ ডজনখানেক ঢালিউড তারকা অভিনয় করবেন এতে। কৌতুকের বেশে জনসচেতনতামূলক এ চলচ্চিত্র নির্মিত হচ্ছে। দেবাশীষ বলেন, ‘বলিউড, টলিউডের শিল্পীরা আগেই এসব করেছেন। আমরাও উৎসাহিত হয়েছি। বেশি সংখ্যক তারকা থাকায় আমাদের সচেতনতামূলক কাজটি দর্শককে প্রভাবিত করবে।’ ১০ মিনিটের এ স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিটি ১৫ মের পর দেখা যাবে একটি ইউটিউব চ্যানেলে।

অ্যান এসকেপিস্ট নামে ১০ মিনিটের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য বানিয়েছেন অনিমেষ আইচ। এর কাহিনি, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন তিনি নিজেই। অভিনয় করেছেন দীপক সুমন, ফকরুজ্জামান, নূরন্নাহার বেবী, নৈঋতা, রুসমিলা। বুধবার রাত আটটায় ছবিটি দেখা যাবে অনিমেষ আইচের ইউটিউব চ্যানেলে।

About admin

Check Also

চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায় মিলছে না ইলিশ!

মার্চ-এপ্রিল দুই মাস ইলিশের অভয়াশ্রমে জাটকা রক্ষার নিষেধাজ্ঞা শেষে প্রায় দুই সপ্তাহেও ইলিশের দেখা নেই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *